Shaz

What is Digital Marketing? Complete & Best Guideline of Digital Marketing in Bangla

What is Digital Marketing
What is Digital Marketing

 

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় স্কিলগুলোর মধ্যে অন্যতম Digital Marketing। তবে আমরা অনেকেই এই স্কিলগুলো সর্ম্পকে কোনো ধারণা রাখি না ফলে  হতাশগ্রস্থ হয়ে ফিরে যাই । মূলত এই প্রেক্ষিতে এই সিরিজে আমরা ডিজিটাল মার্কেটিং এর সকল বিষয়ের সাথে পরিচিত হবো যা আমাদেরকে পরবর্তী  স্টেপে অন্যের চেয়ে এগিয়ে রাখবে।

What is Digital Marketing

ডিজিটাল মার্কেটিং কি? (What is Digital Marketing)

ডিজিটাল মার্কেটিং হলো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সাহায্যে ব্যবসার প্রচার প্রচারণা। মার্কেটিং মুলত আমরা সেই জায়গার করি যেখানে Audience / Viewer বেশি । বর্তমানে সবচেয়ে বেশি  Audience রয়েছে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম গুলোতে। আর এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম গুলোর সাহায্যে আমরা আমাদের ব্যবসা যে প্রসার ঘটায় তাকেই ডিজিটাল মার্কেটিং বলে।

ডিজিটাল মার্কেটিং একটি অত্যন্ত কার্যকরী উপায় যা একটি ব্যবসা বা প্রতিষ্ঠানকে প্রচার এবং উন্নতি করতে সাহায্য করে। এটি ইন্টারনেট এর সাহায্যে বিভিন্ন ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে করা হয়, যেখানে অনুসরণকারীদের সংখ্যা অতিবাহুল্য। এর মাধ্যমে ব্যবসা স্বল্প সময়ে অনেক বেশি সংখ্যক কাস্টমারের দিকে আকর্ষণ করে এবং বিপণন করে, যা ব্যবসার উন্নতি এবং বিকাশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

আপনাকে যা মানতে হবে?

“প্রতিটি তি Topic নিয়ে বেশি বেশি ঘাটাঘাটি করুন তবেই আপনি সেরা হতে পারবেন।”

*ডিজিটাল মার্কেটিং এর ডিমান্ড*

প্রথাগত Traditional মার্কেটিং এর চাহিদা দিন দিন কমে যাচ্ছে। এর অন্যতম কারণ Traditional মার্কেটিং এর মাধ্যমে সামান্য কিংবা নির্দিষ্ট এলাকা পর্যন্ত প্রচারণা সম্ভব। Traditional মার্কেটিং এক দিক থেকে বেশি Audience এর কাছে পৌছাতে পারে না পাশাপাশি ব্যয়বহুল। অন্যদিকে Digital Marketing এ এরকম ধরা বাধা কোনো সিন্ডিকেট নেই। আপনি যদি ঢাকায়ও থাকেন তবে ঘরে বসে পুরো পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে আপনার ব্রান্ডকে পৌঁছে দিতে পারবেন। যার ফলে এর চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

Join Our Free Digital Marketing Bootcamp By Clicking Here

দ্বিতীয়ত ডিজিটাল মার্কেটিং এ নির্দিষ্ট ক্যাটাগরির মানুষের মাঝেই ব্রান্ডকে পৌছানো সম্ভব। যার ফলে ব্যবসায় সেল বেশি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো  ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের দিকেই ঝুকছে।

কত আয় সম্ভব?

আমার উত্তর: আয় ব্যয়ের হিসাব দরকার আছে। তবে যদি আয় ব্যয়ে স্কিল কে বেছে নাও তবে তুমি পারবে না। আগ্রহ জন্মাতে হবে, সময় দিতে হবে। প্রথমে কিছুই পাবেনা, শ্রম দিতে থাকতে হবে আসবে ধীরে ধীরে আবার যাবে তবে যখন তুমি নিজেকে সেরা প্রমাণ করতে পারবে তখনই Stable Earn করতে পারবে। এর জন্য প্রয়োজন শ্রম, ধৈর্য্য আর রিসার্চের মানসিকতা।

তোমার উত্তরঃ ১০ হাজার থেকে ৫০ হাজার পর্যন্ত আয় করা সম্ভব। অভিজ্ঞতা এবং কাজের ভিত্তিতে তুমি তাকে লাখেও অতিক্রম করতে পারবে। তবে মনে রাখবে প্রতিটি জিনিসেরই একটি নির্দিষ্ট সময় আছে।

নীতি কথা

“দোকানে যদি পণ্য না থাকে তবে তুমি কি ব্রিকি করবে আর কি উপান করবে?”

Traditional মার্কেটিং কি?

প্রাচীন সময়ের মার্কেটিং পদ্ধতি, যা সাধারণত “ট্রেডিশনাল মার্কেটিং” নামে পরিচিত । এটি মূলত বিলবোর্ড, ব্যানার, পোস্টার, টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন, রেডিও বিজ্ঞাপন ইত্যাদির মাধ্যমে প্রচারিত হয়। এখনও এই প্রকার প্রচার দেখা যায় বিশ্বের বিভিন্ন অংশে। তবে বর্তমানে ট্রেডিশনাল মার্কেটিং এর চাহিদা বিশ্বব্যাপী কিছুটা কমে গিয়েছে। 

আমাদের সামনে দুটি মার্কেটিং পদ্ধতি রয়েছে: ট্রেডিশনাল এবং ডিজিটাল। ট্রেডিশনাল মার্কেটিং একটি প্রাচীন পদ্ধতি, যা মূলত পুরানো মাধ্যমের সাহায্যে কাজ করে, যেমন টেলিভিশন, রেডিও, ও প্রিন্ট মিডিয়া। অন্যদিকে, ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পূর্ণরূপে আধুনিক এবং দ্রুত বিকাশ করছে।  ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে ইন্টারনেট এবং সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম এর মাধ্যমে  কাস্টমারদের সাথে যোগাযোগ করা হয় । এটি অধিক কার্যকরী, সম্পর্কপরিপূর্ণ, এবং প্রতিস্থায়ী ফলাফল উপযোগী । 

 এছাড়া ট্রেডিশনাল মার্কেটিং এ  খরচ বেশি তবে  ডিজিটাল মার্কেটিং এ খরচের পরিমাণ কম পাশাপাশি  এটি সম্পর্কপরিপূর্ণ, এবং প্রতিস্থায়ী ফলাফল উপযোগী। 

ডিজিটাল মার্কেটিং এ   গ্রাহকের সাথে যোগাযোগ সহজসাধ্য , যেখানে ট্রেডিশনাল মার্কেটিং এ তা প্রায় কস্টসাধ্য এবং বহুসময় এর ব্যাপার।  

যেখানে বিশ্ব চাচ্ছে কম সময়ে বেশি ফল সেখানে তুমি কি করবে তাই ম্যাটার করে ?

চিন্তা করো? 
কোনটি লাভ জনক ডিজিটাল নাকি ট্রাডিশনাল মার্কেটিং?

Digital Marketing Or Traditional Marketing

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের স্কোপ 

ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে আপনি সহজেই এই সিলেবাস অনুসরণ করতে পারেন। এই সিলেবাসে মৌলিক শাখা তুলে ধরা হয়েছে , যা আপনাকে ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রাথমিক ধারণা দেবে। 
Watch How to Start Digital Marketing

ডিজিটাল মার্কেটিং এর মৌলিক বিষয়গুলো

  • Digital Marketing Foundation
  • Search engine optimization (SEO)
  • Pay-per-click advertising (PPC)
  • Social media marketing
  • Content marketing
  • Email marketing

ডিজিটাল মার্কেটিং ফাউন্ডেশন অংশে আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং এর মৌলিক বিষয়গুলো জানতে পারবেন, যেমন ডিজিটাল মার্কেটিং বেসিক, মার্কেটিং টুল, কাস্টমার সাইকোলজি, ডিজিটাল মার্কেটিং চ্যানেল, ডিজিটাল মার্কেটিং স্ট্রাটেজিসমূহ।

এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন) এর বিভিন্ন বিষয়গুলো শেখার মাধ্যমে আপনি অর্গানিকভাবে অর্থাৎ টাকা ছাড়া এসইও মার্কেটিং করতে পারবেন। এই বিষয়গুলো হলো এসইও বেসিক, অন পেজ এসইও, অফ পেজ এসইও, টেকনিক্যাল এসইও, এবং লোকাল এসইও।

PPC বা পে-পার-ক্লিক হচ্ছে একটি ডিজিটাল মার্কেটিং পদ্ধতি, যার প্রধান বিশেষত্ব হচ্ছে- এটিকে পে করতে হয় শুধুমাত্র যখন অনলাইন ইউজাররা পিপিসি অ্যাডে ক্লিক করে তখন। আর বেশিরভাগ ডিজিটাল মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজি শুধু অ্যাড শো করার উপর টাকা নিয়ে থাকে। এতে করে কখনো ক্যাম্পেইন সফল হয়, আবার কখনো বিফল হয়। কিন্তু পিপিসি মার্কেটিং এ শুধুমাত্র অ্যাডে ক্লিক করলে তবেই এটিকে পে করতে হয়। অর্থাৎ আপনার টাকা বিফলে যাওয়ার সুযোগ নেই বললেই চলে। আর এই অ্যাড গুলো তখনই শো করে যখন অডিয়েন্সের কি-ওয়ার্ড এবং ক্রাইটেরিয়ার সাথে ম্যাচ করে। এই ধরনের অ্যাডের দেখা বিভিন্ন এপস গুলোতেও মিলে। এছাড়াও সবচেয়ে বেশি পরিমানে এই ধরনের অ্যাড দেখা যায় গুগল, বিং, এবং ইয়াহু সার্চ ইঞ্জিনে। 

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং হলো সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মগুলির মাধ্যমে পণ্য বা সেবা প্রচার করা। এটি আমাদের কাস্টমারদের সাথে যোগাযোগ করার একটি অত্যন্ত কার্যকর উপায়। এটি আমাদের সহজেই আমাদের পণ্য বা সেবা প্রচার করতে সাহায্য করে ।

Join Our Free Digital Marketing Bootcamp By Clicking Here

Watch How to Start Digital Marketing

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং (SMM) হলো এমন এক টেকনিক বা প্রক্রিয়া, যেখানে বিভিন্ন আলাদা আলাদা Social Media Platform যেমন, Facebook, YouTube, Instagram, LinkedIn এবং আরো অন্যান্য প্লাটফর্ম গুলিতে সক্রিয় থাকা লোকেদের লক্ষ্য (target) করে, পণ্যের গুণমান সচেতনতা (product brand awareness) ছড়ানো হয় ।

কন্টেন্ট মার্কেটিং হলো একটি পরিকল্পনামূলক মার্কেটিং পদ্ধতি, যেখানে মূল্যবান, বিষয়বস্তুতত্ত্বপূর্ণ এবং প্রচুর তথ্য সংকলন করা হয় যাতে সেটা কেবলমাত্র লক্ষ্যযুক্ত প্রোডাক্টের সাথে আকর্ষণ সৃষ্টি করতে পারে। এই পদ্ধতিতে অডিয়েন্সের মধ্যে আগ্রহকারী গ্রাহক প্রাপ্তির লক্ষ্যে পরিবর্তনের চেষ্টা করা হয়।

ই-মেইল মার্কেটিং হলো একটি ডিজিটাল মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজি, যার মাধ্যমে কমার্শিয়াল মেসেজ প্রেরণ করে সেলস জেনারেট করা হয়। এই মার্কেটিং পদ্ধতিতে টার্গেটেড কাস্টমারদের কাছে সরাসরি পন্য বা সেবার বিজ্ঞাপন প্রেরণ করা হয়। ই-মেইল মার্কেটিং মাধ্যমে প্রেরিত ই-মেইল গুলো অনেক কিছু বহন করতে পারে, যেমন প্রয়োজনীয় তথ্য, কোম্পানির খবর, বিজ্ঞাপন, স্পেশাল অফার, এবং সেলস মিটিং এর নিমন্ত্রণ।

Tags :
Digital Marketing Foundation, Notes
Share This :

Newsletter

Get Upskill top blog posts by email